প্রতিষ্ঠান সমূহ


সমিতি ম্যানেজার


আপনার ব্যবসায়ীক সমিতির সকল হিসাব নিকাশের ঝামেলা থেকে আপনাকে মুক্ত করবে সমিতি ম্যানেজার অনলাইন সফটওয়্যার। এটি ব্যাবহারের মাধ্যমে আপনার মাঠকর্মী মাঠে বসেই কালেকশন পোস্টিং দিতে পারবে, আর আপনি এটি মনিটরিং করবেন পৃথিবীর যেকোন প্রান্তে বসে। কালেকশনের সাথে সাথে আপনার গ্রাহকগন পেয়ে যাবে একটি নিশ্চিতকরন এসএমএস।

ইউজার সুবিধাঃ
* অ্যাডমিন
* শেয়ার হোল্ডার
* ব্রাঞ্চ ম্যানেজ
* ম্যানেজার
* ফিল্ড এসিস্ট্যান্ট
* কাস্টমার (লগিইন)
* প্রোফাইল কন্ট্রোল
* পাসওয়ার্ড রিকভার
লেনদের সুবিধাঃ
* ডিপোজিট
* ফিক্সড ডিপোজিট
* ডিপিএস
* লোন
* ইন্সুরেন্স
* ব্যাংক লেনদেন
* আয়-ব্যয়
* অনুদান তহবিল
অন্যান্য সুবিধাঃ
* গ্রাহক ফিল্টারিং
* লেনদেন বার্তা প্রেরন
* ভাউচার প্রিন্ট
* আদায় শীট
* লেজার প্রিন্ট
* স্টেটমেন্ট
* লেনদেন বাতিল
* লেনদেন অন-অফ




কেন আপনি সমিতি ম্যানেজার ব্যবহার করবেন?

কারন আমরা দিচ্ছি আপনা সহজ একটি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম, যা আপনাকে একবার দেখিয়ে দিলে ব্যবহার করকে পারবেন। কেননা এখানে রয়েছে-





বাংলা/ইংলিশ
দুটি ভাষায় ব্যবহার করার সুযোগ

সহজ ও নিরাপদ
লেনদেনের সাথে সংরক্ষন সুবিধা

মেসেজিং সিস্টেম
গ্রাহককে লেনদেনের বার্তা প্রেরন

ব্যবহার রেসপন্সিভ
কম্পিউটার ও মোবাইলে ব্যবহার করা যায়



সদ্য প্রকাশিত



মাইক্রোক্রেডিট কি? এখানে সুদের হার কেমন? এই ঋণ পাওয়ার ক্ষেত্রে শর্ত কী?
Tuesday, 25th July, 2023

মাইক্রোক্রেডিট কি?

অনুঋণ (মাইক্রোক্রেডিট) হল গ্রাম, আধা-শহর ও শহরের খুব ক্ষুদ্র সংখ্যার দরিদ্রদের উন্নতি, ঋণ এবং অন্যান্য অর্থনৈতিক পরিষেবা ও পণ্যের সুবিধা প্রদান যাতে তারা তাদের উপার্জন বাড়াতে পারে এবং জীবনযাত্রার উন্নতি ঘটাতে পারে। অনুঋণ (মাইক্রোক্রেডিট) সংস্থা তারাই যারা এইসব সুবিধা প্রদান করেন।

এখানে সুদের হার কেমন?

সুদের হারের পরিবর্তন ১৯৯১ সালে আমাদের দেশে নেওয়া অর্থনৈতিক সংস্কারের একটা অঙ্গ ছিল। এই সংস্কারের ধারা হিসাবে, অনুঋণ (মাইক্রোক্রেডিট) সংস্থাকে দেওয়া ব্যাংক ঋণ অথবা স্ব-নির্ভর দল (সেল্ফ-হেল্প গ্রুপ)/সদস্য-হিতকারীদের দেওয়া অনুঋণ (মাইক্রোক্রেডিট) সংস্থার ঋণের উপর সুদের হারকে তাদের ইচ্ছার উপর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ব্যাংক দ্বারা ব্যক্তি ঋণগ্রহণকারীদের সরাসরিভাবে দেওয়া ক্ষুদ্র ঋণের উপর সুদের হারের উচ্চ সীমা বহাল থাকবে।

এই ঋণ পাওয়ার ক্ষেত্রে শর্ত কী? 

বাস্তবিকতার কথা মাথায় রেখে ব্যাংকগুলি নিজস্বরূপে শর্তাবলী আরোপের সুযোগ দিয়েছে। তাদের নিজস্বভাবে ঋণ এবং সঞ্চয় প্রকল্পের পরিকল্পনা করতে বলা হয়েছে এবং তার সঙ্গে ঋণের পরিমান, ইউনিটের দাম, ইউনিটের আকৃতি, পরিণতিপ্রাপ্তির সময়াকাল, ছাড়ের সময়সীমা, মার্জিন ইত্যাদির সাথে সম্পর্কিত সকল শর্তাবলী। এই সকল ক্রেডিট যে শুধু দরিদ্রদের ফার্ম ও অ-ফার্মের ব্যয় ও তৈয়ারীকরণের ঋণ দেয় না, তা অন্যান্য ক্রেডিট যেমন গৃহ ও আচ্ছাদনের উন্নতির ক্ষেত্রেও ঋণ দেয়।

 

লোন কাকে বলে? লোন বলতে কি বোঝায়? লোন আবেদনের জন্য কি প্রয়োজন?
Tuesday, 25th July, 2023

প্রস্তাবনাঃ

লোন এখনকার সময় খুবই common আর helpful একটি সুবিধা। আপনাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা হয়ত লোন নিতে চান , কিন্তু লোন কি বা লোন কাকে বলে সেটাই বুঝতে পারেন না। আপনাদের কাছে হয়তো অনেক সময় এমন ম্যাসেজ বা কল এসে থাকবে যেখানে আপনাকে বলা হয় – আপনার কি লোন এর খুব দরকার? আপনি কি এখন লোন নিতে চান? আমাদের কাছে লোন নিন ইত্যাদী। এসব কল বা ম্যাসেজ এ আপনারা খুবই irritate হয়ে যান। 

এইরকম করা হয় থাকে কারণ লোন এর অর্থ হলো এখানে একটি ধন সম্পদ সম্পন্ন ব্যক্তি অন্য একটি individual ব্যক্তি কে টাকা বা কোনো সম্পদ প্রদান করে ।এটা কোন ব্যাংক বা Non-banking financial company (NBFC) এর সবথেকে বড় primary financial product যেটা কোম্পানি সাধারণ মানুষের কাছে অফার করে থাকে। 

কিন্তু কখনো এটা ভেবে দেখেছেন- লোন কি বা লোন কাকে বলে? কেন আজকে এটা এত common হয়ে উঠেছে? কোনো সাধারণ মানুষ থেকে শুরু বিভিন্ন ব্যবসায়ী আরও অনেকে কেন লোন নিচ্ছে? এই সব এর পিছনেও অবশ্যই একটা কারণ আছে। তাহলে আসুন আজকে এই post এর মাধ্যমে আমরা জেনে নিই লোন কি এবং এর পুরো details – 

যদি আপনি কখনো লোন না নিয়ে থাকেন তাহলে এর গুরুত্ব হয়তো আপনি জানেন না। যখন ধরুন টাকার খুব দরকার হয় যেমন ঘর বানাতে, বাচ্চার পড়াশোনার জন্য, কোন রোগের চিকিৎসার জন্য ইত্যাদি এবার এই সময়ে যদি আপনার কাছে টাকা না থাকে আর এরকম বড় একটা amount এর টাকা আপনি কখনোই কোনো আত্মীয় বা বন্ধু বান্ধবদের কাছে চাইতে না পারে তখন আপনার একমাত্র রাস্তা থাকবে লোন। 

লোন কাকে বলে?- What is loan in Bengali

লোন কথাটা শুনলেই ব্যাঙ্ক এর কথা আগে মাথায় আসে কেননা এখনকার দিনে কোনো আর্থিক সুজোগ সুবিধা আমরা ব্যাংক থেকে পাই। সহজ ভাষায় বলতে কোনো লোন বলতে কোনো বস্তুকে ধরতে পারেন, এটা যখন আবার শুধু টাকার ক্ষেত্রে হয় তখন সেটা লোন। এখানে আপনি যখন কোনো অন্য ব্যক্তির থেকে টাকা ধার নিচ্ছেন তখন সেটা আপনাকে সুদ সমেত ফেরত দিতে হবে। 

    আবার আপনি এটাও ভাবতে পারেন যে কোনো এক ব্যক্তি অপর আরেক ব্যক্তি জার টাকার প্রয়োজন আছে তাকে কিছু টাকা, সম্পত্তি বা অন্য কোনো সম্পদ ধার দিলো। এবার সেই ধার নেওয়া ব্যক্তি যখন ভবিষ্যতে সেই টাকা ফেরত দেবে তখন তাকে সেই টাকা, সুদ এবং finance charge দিয়ে শোধ করতে হবে।

         ব্যাংক খুবই secure বা safe একটি জায়গা। কারণ একমাত্র ব্যাংক  এমন একটা financial institutions যেখানে আপনি  লোন এর সাথে interest ফেরত দিতে পারেন। তাই এখনকার দিনে লোন নিতে হলে সরাসরি ব্যাংকের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।  ব্যাংক খুবই secure এবং তাড়াতাড়ি আপনাকে লোন প্রদান করতে পারে। 

    আরো একটা গুরুত্বপূর্ণ কথা হলো লোন বিপদের সময় আপনার পাশে দাঁড়িয়ে আপনাকে সাহায্য করে তেমনি লোন ফেরত দেওয়ার সময় আপনি অক্ষম হলে আপনাকে অনেক অসুবিধা তে পড়তে হতে পারে।

লোন পাওয়ার যোগ্যতা-

বৈশিষ্ট্য Salary paid person Self-Employed
রোজগার ২৫ হাজার Minimum turnover ৪০ লক্ষ
বয়সসীমা ২৩ বছর থেকে ৫৮ বছর ২৮ বছর থেকে ৬৫ বছর
CIBIL Score ৭৫০ এর ঊর্ধ্বে ৭৫০ এর ঊর্ধ্বে

লোন আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট

Salary paid person Self-Employed
ছবি+আবেদন পত্র ছবি+আবেদন পত্র
পরিচয় প্রমাণপত্র পরিচয় প্রমাণপত্র
ঠিকানার প্রমাণপত্র  ঠিকানার প্রমাণপত্র 
গত ৬ মাসের Bank Statement গত ৬ মাসের Bank Statement
সালারি পাওয়ার রশিদ ব্যবসার প্রমান
১৬ নং Form বিগত তিন সালের ইনকাম ট্যাক্স রিটার্ন(self and business)বিগত তিন সালের Profit/Loss এবং Balance Sheet
চেক এর প্রসেসিং ফি চেক এর প্রসেসিং ফি

লোনের তিনটি প্রধান উপাদান-

লোনের তিন প্রকার এর components হয়-

  1. Principal বা যেটা আপনি ধার করছেন।
  2. Rate of interest বা সুদের হার
  3. লোন এর duration বা কখন লোন নেওয়া হয়েছে

মূলধন

 আপনি কোন ব্যাংক বা financial institutions বা কোনো ব্যক্তির কাছ থেকে যখন লোন নেন তখন যে পরিমাণ টাকা আপনি নিচ্ছেন সেটাই হলো principal amount। অর্থাৎ যে পরিমাণ টাকা আপনি ধার নিয়েছেন।

সুদের হার

এটা এমন একটা amount যেটা সময়ের সাথে সাথে মূলধনের এর সঙ্গে সংযুক্ত হতে থাকে। আবার এটাও বলা যায় যে আপনাকে কেউ তো বিনা interest এ লোন ফেরত দেবে না তাই যে amount টা principal amount t এর সাথে ফেরত দেওয়া হয় তাকে rate of interest বলে। 

লোনের সময়কাল

আপনি যখন কাউকে লোন দিচ্ছেন সেই টাকা তাকে ফেরত দিতে হবে কিন্তু সে আপনাকে কোনো fixed date বলে দেয়না না যে সেই date টাকা ফেরত দেবে। কিন্তু সে আপনাকে একটা date অবশ্যই দিয়ে থাকে যার মধ্যে তাকে আপনার টাকা ফেরত দিতে হবে। সেই date টিকে বলে লোনের duration। 

লোন এর বিভাগ :-  

লোন কে সাধারণত দুই ভাগে ভাগ করা যায়,

  1. Secured
  2. Unsecured 

 তাহলে এবার জানা যাক Secured এবং Usecured লোন এর সমন্ধে- 

Secured –

 এটা হলো এমন একটা লোন যেখানে secure, নিশ্চিত ভাবে লোন দেওয়া হয় assets এর রূপে। যেমন ধরুন- gold, property, fixed deposit আর PF বা provident fund এর মাধ্যমে। 

Unsecured – 

এটা এমন একটা লোন যা শুধু আপনি নিজের প্রয়োজন মেটাতে ব্যবহার করতে পারেন। এখানে কোন প্রকারের security, collateral এর দরকার পড়ে না। এটা এক ধরনের personal লোন। ব্যাংক ও NBFC এই লোন আপনাকে কোনপ্রকার এর security ছাড়াই দিয়ে থাকে। এবং এর সাথে তারা আপনার CIBIL Score ও personal track record গুলো দেখে থাকে। 

লোন এর মূল কয়েকটি ভাগ – 

লোন সাধারণ ভাবে 6 প্রকারের হয়ে থাকে। যেমন – 

  1. Home লোন
  2. Education লোন
  3. Car লোন 
  4. Personal লোন
  5. Business লোন
  6. Gold লোন

Home লোন 

যখন কোনো ব্যক্তি নিজের বাড়ি বানাবার জন্য বা কেনার জন্য যেকোনো financial institutions থেকে একটা নির্দিষ্ট সময়ের জন্য টাকা ধার নেয় এবং তা আবার সময় এর মধ্যে সুদ সমেদ ব্যাংকে ফেরত দেয় দেয় তাকে home লোন বলে। 

Education লোন

ধরুন আপনি একজন student এবার আপনি আপনার education এর খরচ নিজে চালাতে চান বা others কোনো problem এর জন্য আপনাকে আপনার education এর খরচ নিজেকেই দিতে হয় সেক্ষেত্রে এই লোন আপনাকে সাহায্য করতে পারে। 

প্রথমে আপনি আপনার education এর জন্যে ব্যাংক থেকে লোন নিলেন তারপর নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তা সুদ সমেত ফেরত দিয়ে দিলেন একেই education লোন বলে। 

Car লোন 

আপনি ধরুন একটা নতুন বা second hand car কিনতে চান। কিন্তু তখন যদি আপনার কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণ টাকা না থাকে তখন আপনি সেই ক্ষেত্র car লোন use করতে পারেন। 

Personal লোন 

personal লোন এর কোনো security থাকে না। এটা একটা Unsecured লোন। এখানে interest এর মান অনেক বেশি থাকে। 

Business লোন

আপনি যদি এখন Business করছেন বা business শুরু করতে চাইছেন এবং এর জন্য আপনার যদি টাকা লাগে তাহলে আপনি Business লোন নিতে পারেন। 

Gold লোন

আপনি যদি short term এর জন্য লোন নিতে চান যেমন 1 বছর বা 2 বছর এর জন্য বা ধরুন আপনি বাড়ি কেনার জন্য বা business এ urgent কোনো টাকা লাগলে, তখন আপনি গোল্ড লোন নিতে পারেন। এখানে 3 থেকে 4 বছর এর জন্য লোন দেওয়া হয়। আর এখানে অনেক বেশি amount এর টাকা দেওয়া হয় না।

সমিতি ম্যানেজার কিভাবে কাজ করে?
Monday, 24th July, 2023

সমিতি ম্যানজার হলো একটি সচ্ছ, সুন্দর ও নির্ভুল হিসাবধারী সফটওয়্যার। এর মাধ্যমে আপনি আপনার ব্যবসায়ী সমতির হিসাব নিকাশ সংরক্ষন করতে পারবেন অতি সহজে ও নির্ভুল ভাবে।

সমিতি ম্যানেজার যেভাবে কাজ করে-

১. গ্রাহকের প্রোফাইলে যাবতীয় তথ্যাদী সংরক্ষন করা।
২. সাধারণ ডিপোজিট, ফিক্সড ডিপোজিট, ডিপিএস ও ইনসুরেন্স গ্রহনের সুবিধা।
৩. লোন প্রদান ও আদায়ের সাথে মেনুয়ালী ইন্টারেস্ট বসানোর সুবিধা, যা মূল লোনের সাথে অটো ক্যালকুলেশন হবে।
৪. লোন রিনুয়াল সুবিধা। ৫. তারিখ অনুযায়ী গ্রাহকের লেনদেন স্ট্রেটমেন্ট দেখা।
৬. সকল কালেকশনের সামরি দেখা ও প্রিন্ট করা।
৭. কাস্টমারের আদায় সীট ও লেজার প্রিন্ট।
৮. কাস্টমারকে লেনদেনের নিশ্চিতকরন এস.এম.এস দেয়া।
৯. ব্যাংক ডিপোজিট।
১০. ওয়েলফেয়ার।
১১. সেটেলমেন্ট এ্যাডজাস্টমেন্ট।
১২. কর্মচারীদের বেতন ভাতা প্রদানের সুবিধা।
১৩. ভূল লেনদেন সংশোধনের সুবিধাতো থাকছেই সাথে থাকছে আনলিমিটেড ইউজার দেয়ার সুবিধা।
তাই কাল বিলম্ব না করে এখনি ডাউনলোড করুন সমিতি ম্যানেজার সফটওয়্যার।

আমাদের রয়েছে সুপার সিকিউর ক্লাউড ডাটা স্টোরেজ সেন্টার (বাই আলফানেটা)। যেখানে আপনার ডাটা থাকবে সুরক্ষিত। গ্রাহকের ডেটা সিকিউরিটির জন্য আমরা শতভাগ সহায়তা প্রদান করি। 

কেন আপনি সমিতি ম্যানেজার সফটওয়্যারটি ব্যবহার করবেন?
Thursday, 27th July, 2023

কোন ব্যবসা সুন্দর ভাবে পরিচালনা করতে হলে তার ম্যানেজমেন্ট সুন্দর হওয়া খুবই গরুত্বপূর্ণ। আর সেই ব্যবসা যদি হয় অর্থনৈতিক, তবে তার হিসাব নিকাশ সুক্ষ্ম ও নির্ভুল হওয়া একান্ত জরুরী। আমরা বিশ্বাস করি আপনার সুন্দর ব্যবসার নির্ভুল হিসাব ও সুক্ষ্ম সংরক্ষন আপনার ব্যবসাকে আরো গতিশীল করবে। সেক্ষেত্রে আপনাকে সহায়তা করবে আমাদের সমিতি ম্যানেজোর সফটওয়্যার। 

কেন আপনি সমিতি ম্যানেজার সফটওয়্যারটি ব্যবহার করবেন?
সমিতি ম্যানেজার হলো একটি সচ্ছ, সুন্দর ও নির্ভুল হিসাবধারী সফটওয়্যার। এর মাধ্যমে আপনি আপনার ব্যবসায়ী সমতির হিসাব নিকাশ সংরক্ষন করতে পারবেন অতি সহজে ও নির্ভুল ভাবে। যা আনপার ব্যবসাকে করবে সহজ ও আরো গতিশীল।

সমিতি ম্যানেজার যেভাবে কাজকরে-
১. গ্রাহকের প্রোফাইলে যাবতীয় তথ্যাদী সংরক্ষন করা।
২. সাধারণ ডিপোজিট, ফিক্সড ডিপোজিট, ডিপিএস ও ইনসুরেন্স গ্রহনের সুবিধা।
৩. লোন প্রদান ও আদায়ের সাথে মেনুয়ালী ইন্টারেস্ট বসানোর সুবিধা, যা মূল লোনের সাথে অটো ক্যালকুলেশন হবে।
৪. লোন রিনুয়াল সুবিধা। ৫. তারিখ অনুযায়ী গ্রাহকের লেনদেন স্ট্রেটমেন্ট দেখা।
৬. সকল কালেকশনের সামরি দেখা ও প্রিন্ট করা।
৭. কাস্টমারের আদায় সীট ও লেজার প্রিন্ট।
৮. কাস্টমারকে লেনদেনের নিশ্চিতকরন এস.এম.এস দেয়া।
৯. ব্যাংক ডিপোজিট।
১০. ওয়েলফেয়ার।
১১. সেটেলমেন্ট এ্যাডজাস্টমেন্ট।
১২. কর্মচারীদের বেতন ভাতা প্রদানের সুবিধা।
১৩. ভূল লেনদেন সংশোধনের সুবিধাতো থাকছেই সাথে থাকছে আনলিমিটেড ইউজার দেয়ার সুবিধা।
তাই কাল বিলম্ব না করে এখনি ডাউনলোড করুন সমিতি ম্যানেজার সফটওয়্যার।

সমিতি ম্যানেজার মূলত কি ধরনের সফটওয়্যার? এটি ব্যবহারের নিয়ম কি?
Tuesday, 25th July, 2023

সমিতি ম্যানেজার মূলত কি ধরনের সফটওয়্যার? 

সমিতি ম্যানেজার একটি মাইক্রোফাইন্যান্স বিজনেস ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার। পৃথিবীর যেকোন প্রান্তে বসে আপনি আপনার মাইক্রোফাইন্যান্স ব্যবসার হিসাব মনিটরিং করতে পারবেন অনায়াসে। এই সফটওয়ারটি তৈরী করা হয়েছে মূলত: আর্থিক প্রতিষ্ঠানের (বিভিন্ন সমবায় সমিতি/ মাল্টিপারপাস /এনজিও/বীমা) সদস্যদের তথ্য সংরক্ষণ ও আর্থিক ব্যবস্থাপনার কাজকে সহজ ও সাবলিল করার জন্য। 

এই সফটওয়ারের মাধ্যমে সহজেই কোন আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সকল কর্মকর্তা, কর্মচারী ও সদস্যদের ছবি সহ সকল প্রয়োজনীয় তথ্য সংরক্ষণ (Save), সংযোজন(Add), বিয়োজন(Delete), সম্পাদনা (Edit) ও তল্লাশি (Search) করা যায়।

যা থাকছে এখানেঃ

* প্রতিষ্ঠানের সকল ধরণের খরচ খাতওয়ারী, তারিখ অনুযায়ী, যে কোন শাখার যে কোন কর্মীর আওতায় যে কোন সদস্যের নামে প্রয়োজনীয় তথ্যসহ এন্টি করা যায়।

* সংরক্ষিত তথ্য মোছা, সংশোধন, শাখাওয়ারী/মাসওয়ারী/বছর ওয়ারী মোট খরচ বের করা, কোন কর্মী/সদস্যের আওতায় কত খরচ তা জানা যায়, মাস বা বছর ওয়ারী যে কোন খরচের তথ্য রিপোর্ট আকারে প্রিন্ট করা যায়।

* প্রতিষ্ঠানের সকল ধরণের আয় খাতওয়ারী, তারিখ অনুযায়ী, যে কোন শাখার যে কোন কর্মীর আওতায় যে কোন সদস্যের নামে প্রয়োজনীয় তথ্যসহ এন্টি করা যায়।

* এছাড়া সংরক্ষিত তথ্য মোছা, সংশোধন, শাখাওয়ারী/মাসওয়ারী/বছর ওয়ারী মোট আয় বের করা, কোন কর্মী/সদস্যের আওতায় কত জমা হল তা জানা যায়, মাস বা বছর ওয়ারী যে কোন আয়ের তথ্য রিপোর্ট আকারে প্রিন্ট করা যায়।

* এই সফটওয়ারের মাধ্যমে সহজেই যে কোন শাখার সকল তথ্য (ম্যানেজারের তথ্য, সকল কর্মী, সদস্য, মোট আয়, মোট খরচ প্রভৃতি) জানা যায়।

* বিনিয়োগ সংক্রান্ত সকল তথ্য (কবে, কাকে, কোন খাতে, কত টাকা বিনিয়োগ করা হয়েছে, গ্রহিতার ছবিসহ স্বাক্ষর, গ্যারান্টারের ছবিসহ স্বাক্ষর, কত কিস্তিতে, কত লাভে, কত দিনের মধ্যে টাকা পরিশোধ করতে হবে ইত্যাদি) এই সফটওয়ারের মাধ্যমে সহজেই ব্যবস্থাপনা করা যায়।

* বছর শেষে অডিট রিপোর্ট এর জন্য দিনের পর দিন কষ্ট করে হিসেব নিকেশ করতে হয় না। মাত্র এক মিনিটেই আপনার এই সকল হিসেব-নিকেশ এর আউটপুট দিতে সক্ষম।

* বাৎসরিক লাভ লোকসান , মাসিক লাভ লোকসান , Balance sheet, প্রফিট বিতরন, Trial Balance, ব্যাংক হিসেব-নিকেশ, পার্সোনাল স্টেটমেন্ট , ভাউচার , জেনারেল লেজার ইত্যাদি সকল প্রকার একাউন্টিং রিপোর্ট রেডি করা রয়েছে।

 




Advertisement



সমিতি ম্যানেজার কিভাবে কাজ করে? Monday, 24th July, 2023

সমিতি ম্যানজার হলো একটি সচ্ছ, সুন্দর ও নির্ভুল হিসাবধারী সফটওয়্যার। এর মাধ্যমে আপনি আপনার ব্যবসায়ী সমতির হিসাব নিকাশ সংরক্ষন করতে পারবেন অতি সহজে ও নির্ভুল ভাবে।

সমিতি ম্যানেজার যেভাবে কাজ করে-

১. গ্রাহকের প্রোফাইলে যাবতীয় তথ্যাদী সংরক্ষন করা।
২. সাধারণ ডিপোজিট, ফিক্সড ডিপোজিট, ডিপিএস ও ইনসুরেন্স গ্রহনের সুবিধা।
৩. লোন প্রদান ও আদায়ের সাথে মেনুয়ালী ইন্টারেস্ট বসানোর সুবিধা, যা মূল লোনের সাথে অটো ক্যালকুলেশন হবে।
৪. লোন রিনুয়াল সুবিধা। ৫. তারিখ অনুযায়ী গ্রাহকের লেনদেন স্ট্রেটমেন্ট দেখা।
৬. সকল কালেকশনের সামরি দেখা ও প্রিন্ট করা।
৭. কাস্টমারের আদায় সীট ও লেজার প্রিন্ট।
৮. কাস্টমারকে লেনদেনের নিশ্চিতকরন এস.এম.এস দেয়া।
৯. ব্যাংক ডিপোজিট।
১০. ওয়েলফেয়ার।
১১. সেটেলমেন্ট এ্যাডজাস্টমেন্ট।
১২. কর্মচারীদের বেতন ভাতা প্রদানের সুবিধা।
১৩. ভূল লেনদেন সংশোধনের সুবিধাতো থাকছেই সাথে থাকছে আনলিমিটেড ইউজার দেয়ার সুবিধা।
তাই কাল বিলম্ব না করে এখনি ডাউনলোড করুন সমিতি ম্যানেজার সফটওয়্যার।

আমাদের রয়েছে সুপার সিকিউর ক্লাউড ডাটা স্টোরেজ সেন্টার (বাই আলফানেটা)। যেখানে আপনার ডাটা থাকবে সুরক্ষিত। গ্রাহকের ডেটা সিকিউরিটির জন্য আমরা শতভাগ সহায়তা প্রদান করি। 

মাইক্রোক্রেডিট কি? এখানে সুদের হার কেমন? এই ঋণ পাওয়ার ক্ষেত্রে শর্ত কী? Tuesday, 25th July, 2023

মাইক্রোক্রেডিট কি?

অনুঋণ (মাইক্রোক্রেডিট) হল গ্রাম, আধা-শহর ও শহরের খুব ক্ষুদ্র সংখ্যার দরিদ্রদের উন্নতি, ঋণ এবং অন্যান্য অর্থনৈতিক পরিষেবা ও পণ্যের সুবিধা প্রদান যাতে তারা তাদের উপার্জন বাড়াতে পারে এবং জীবনযাত্রার উন্নতি ঘটাতে পারে। অনুঋণ (মাইক্রোক্রেডিট) সংস্থা তারাই যারা এইসব সুবিধা প্রদান করেন।

এখানে সুদের হার কেমন?

সুদের হারের পরিবর্তন ১৯৯১ সালে আমাদের দেশে নেওয়া অর্থনৈতিক সংস্কারের একটা অঙ্গ ছিল। এই সংস্কারের ধারা হিসাবে, অনুঋণ (মাইক্রোক্রেডিট) সংস্থাকে দেওয়া ব্যাংক ঋণ অথবা স্ব-নির্ভর দল (সেল্ফ-হেল্প গ্রুপ)/সদস্য-হিতকারীদের দেওয়া অনুঋণ (মাইক্রোক্রেডিট) সংস্থার ঋণের উপর সুদের হারকে তাদের ইচ্ছার উপর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ব্যাংক দ্বারা ব্যক্তি ঋণগ্রহণকারীদের সরাসরিভাবে দেওয়া ক্ষুদ্র ঋণের উপর সুদের হারের উচ্চ সীমা বহাল থাকবে।

এই ঋণ পাওয়ার ক্ষেত্রে শর্ত কী? 

বাস্তবিকতার কথা মাথায় রেখে ব্যাংকগুলি নিজস্বরূপে শর্তাবলী আরোপের সুযোগ দিয়েছে। তাদের নিজস্বভাবে ঋণ এবং সঞ্চয় প্রকল্পের পরিকল্পনা করতে বলা হয়েছে এবং তার সঙ্গে ঋণের পরিমান, ইউনিটের দাম, ইউনিটের আকৃতি, পরিণতিপ্রাপ্তির সময়াকাল, ছাড়ের সময়সীমা, মার্জিন ইত্যাদির সাথে সম্পর্কিত সকল শর্তাবলী। এই সকল ক্রেডিট যে শুধু দরিদ্রদের ফার্ম ও অ-ফার্মের ব্যয় ও তৈয়ারীকরণের ঋণ দেয় না, তা অন্যান্য ক্রেডিট যেমন গৃহ ও আচ্ছাদনের উন্নতির ক্ষেত্রেও ঋণ দেয়।

 

সমিতি ম্যানেজার মূলত কি ধরনের সফটওয়্যার? এটি ব্যবহারের নিয়ম কি? Tuesday, 25th July, 2023

সমিতি ম্যানেজার মূলত কি ধরনের সফটওয়্যার? 

সমিতি ম্যানেজার একটি মাইক্রোফাইন্যান্স বিজনেস ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার। পৃথিবীর যেকোন প্রান্তে বসে আপনি আপনার মাইক্রোফাইন্যান্স ব্যবসার হিসাব মনিটরিং করতে পারবেন অনায়াসে। এই সফটওয়ারটি তৈরী করা হয়েছে মূলত: আর্থিক প্রতিষ্ঠানের (বিভিন্ন সমবায় সমিতি/ মাল্টিপারপাস /এনজিও/বীমা) সদস্যদের তথ্য সংরক্ষণ ও আর্থিক ব্যবস্থাপনার কাজকে সহজ ও সাবলিল করার জন্য। 

এই সফটওয়ারের মাধ্যমে সহজেই কোন আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সকল কর্মকর্তা, কর্মচারী ও সদস্যদের ছবি সহ সকল প্রয়োজনীয় তথ্য সংরক্ষণ (Save), সংযোজন(Add), বিয়োজন(Delete), সম্পাদনা (Edit) ও তল্লাশি (Search) করা যায়।

যা থাকছে এখানেঃ

* প্রতিষ্ঠানের সকল ধরণের খরচ খাতওয়ারী, তারিখ অনুযায়ী, যে কোন শাখার যে কোন কর্মীর আওতায় যে কোন সদস্যের নামে প্রয়োজনীয় তথ্যসহ এন্টি করা যায়।

* সংরক্ষিত তথ্য মোছা, সংশোধন, শাখাওয়ারী/মাসওয়ারী/বছর ওয়ারী মোট খরচ বের করা, কোন কর্মী/সদস্যের আওতায় কত খরচ তা জানা যায়, মাস বা বছর ওয়ারী যে কোন খরচের তথ্য রিপোর্ট আকারে প্রিন্ট করা যায়।

* প্রতিষ্ঠানের সকল ধরণের আয় খাতওয়ারী, তারিখ অনুযায়ী, যে কোন শাখার যে কোন কর্মীর আওতায় যে কোন সদস্যের নামে প্রয়োজনীয় তথ্যসহ এন্টি করা যায়।

* এছাড়া সংরক্ষিত তথ্য মোছা, সংশোধন, শাখাওয়ারী/মাসওয়ারী/বছর ওয়ারী মোট আয় বের করা, কোন কর্মী/সদস্যের আওতায় কত জমা হল তা জানা যায়, মাস বা বছর ওয়ারী যে কোন আয়ের তথ্য রিপোর্ট আকারে প্রিন্ট করা যায়।

* এই সফটওয়ারের মাধ্যমে সহজেই যে কোন শাখার সকল তথ্য (ম্যানেজারের তথ্য, সকল কর্মী, সদস্য, মোট আয়, মোট খরচ প্রভৃতি) জানা যায়।

* বিনিয়োগ সংক্রান্ত সকল তথ্য (কবে, কাকে, কোন খাতে, কত টাকা বিনিয়োগ করা হয়েছে, গ্রহিতার ছবিসহ স্বাক্ষর, গ্যারান্টারের ছবিসহ স্বাক্ষর, কত কিস্তিতে, কত লাভে, কত দিনের মধ্যে টাকা পরিশোধ করতে হবে ইত্যাদি) এই সফটওয়ারের মাধ্যমে সহজেই ব্যবস্থাপনা করা যায়।

* বছর শেষে অডিট রিপোর্ট এর জন্য দিনের পর দিন কষ্ট করে হিসেব নিকেশ করতে হয় না। মাত্র এক মিনিটেই আপনার এই সকল হিসেব-নিকেশ এর আউটপুট দিতে সক্ষম।

* বাৎসরিক লাভ লোকসান , মাসিক লাভ লোকসান , Balance sheet, প্রফিট বিতরন, Trial Balance, ব্যাংক হিসেব-নিকেশ, পার্সোনাল স্টেটমেন্ট , ভাউচার , জেনারেল লেজার ইত্যাদি সকল প্রকার একাউন্টিং রিপোর্ট রেডি করা রয়েছে।

 

লোন কাকে বলে? লোন বলতে কি বোঝায়? লোন আবেদনের জন্য কি প্রয়োজন? Tuesday, 25th July, 2023

প্রস্তাবনাঃ

লোন এখনকার সময় খুবই common আর helpful একটি সুবিধা। আপনাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা হয়ত লোন নিতে চান , কিন্তু লোন কি বা লোন কাকে বলে সেটাই বুঝতে পারেন না। আপনাদের কাছে হয়তো অনেক সময় এমন ম্যাসেজ বা কল এসে থাকবে যেখানে আপনাকে বলা হয় – আপনার কি লোন এর খুব দরকার? আপনি কি এখন লোন নিতে চান? আমাদের কাছে লোন নিন ইত্যাদী। এসব কল বা ম্যাসেজ এ আপনারা খুবই irritate হয়ে যান। 

এইরকম করা হয় থাকে কারণ লোন এর অর্থ হলো এখানে একটি ধন সম্পদ সম্পন্ন ব্যক্তি অন্য একটি individual ব্যক্তি কে টাকা বা কোনো সম্পদ প্রদান করে ।এটা কোন ব্যাংক বা Non-banking financial company (NBFC) এর সবথেকে বড় primary financial product যেটা কোম্পানি সাধারণ মানুষের কাছে অফার করে থাকে। 

কিন্তু কখনো এটা ভেবে দেখেছেন- লোন কি বা লোন কাকে বলে? কেন আজকে এটা এত common হয়ে উঠেছে? কোনো সাধারণ মানুষ থেকে শুরু বিভিন্ন ব্যবসায়ী আরও অনেকে কেন লোন নিচ্ছে? এই সব এর পিছনেও অবশ্যই একটা কারণ আছে। তাহলে আসুন আজকে এই post এর মাধ্যমে আমরা জেনে নিই লোন কি এবং এর পুরো details – 

যদি আপনি কখনো লোন না নিয়ে থাকেন তাহলে এর গুরুত্ব হয়তো আপনি জানেন না। যখন ধরুন টাকার খুব দরকার হয় যেমন ঘর বানাতে, বাচ্চার পড়াশোনার জন্য, কোন রোগের চিকিৎসার জন্য ইত্যাদি এবার এই সময়ে যদি আপনার কাছে টাকা না থাকে আর এরকম বড় একটা amount এর টাকা আপনি কখনোই কোনো আত্মীয় বা বন্ধু বান্ধবদের কাছে চাইতে না পারে তখন আপনার একমাত্র রাস্তা থাকবে লোন। 

লোন কাকে বলে?- What is loan in Bengali

লোন কথাটা শুনলেই ব্যাঙ্ক এর কথা আগে মাথায় আসে কেননা এখনকার দিনে কোনো আর্থিক সুজোগ সুবিধা আমরা ব্যাংক থেকে পাই। সহজ ভাষায় বলতে কোনো লোন বলতে কোনো বস্তুকে ধরতে পারেন, এটা যখন আবার শুধু টাকার ক্ষেত্রে হয় তখন সেটা লোন। এখানে আপনি যখন কোনো অন্য ব্যক্তির থেকে টাকা ধার নিচ্ছেন তখন সেটা আপনাকে সুদ সমেত ফেরত দিতে হবে। 

    আবার আপনি এটাও ভাবতে পারেন যে কোনো এক ব্যক্তি অপর আরেক ব্যক্তি জার টাকার প্রয়োজন আছে তাকে কিছু টাকা, সম্পত্তি বা অন্য কোনো সম্পদ ধার দিলো। এবার সেই ধার নেওয়া ব্যক্তি যখন ভবিষ্যতে সেই টাকা ফেরত দেবে তখন তাকে সেই টাকা, সুদ এবং finance charge দিয়ে শোধ করতে হবে।

         ব্যাংক খুবই secure বা safe একটি জায়গা। কারণ একমাত্র ব্যাংক  এমন একটা financial institutions যেখানে আপনি  লোন এর সাথে interest ফেরত দিতে পারেন। তাই এখনকার দিনে লোন নিতে হলে সরাসরি ব্যাংকের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।  ব্যাংক খুবই secure এবং তাড়াতাড়ি আপনাকে লোন প্রদান করতে পারে। 

    আরো একটা গুরুত্বপূর্ণ কথা হলো লোন বিপদের সময় আপনার পাশে দাঁড়িয়ে আপনাকে সাহায্য করে তেমনি লোন ফেরত দেওয়ার সময় আপনি অক্ষম হলে আপনাকে অনেক অসুবিধা তে পড়তে হতে পারে।

লোন পাওয়ার যোগ্যতা-

বৈশিষ্ট্য Salary paid person Self-Employed
রোজগার ২৫ হাজার Minimum turnover ৪০ লক্ষ
বয়সসীমা ২৩ বছর থেকে ৫৮ বছর ২৮ বছর থেকে ৬৫ বছর
CIBIL Score ৭৫০ এর ঊর্ধ্বে ৭৫০ এর ঊর্ধ্বে

লোন আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট

Salary paid person Self-Employed
ছবি+আবেদন পত্র ছবি+আবেদন পত্র
পরিচয় প্রমাণপত্র পরিচয় প্রমাণপত্র
ঠিকানার প্রমাণপত্র  ঠিকানার প্রমাণপত্র 
গত ৬ মাসের Bank Statement গত ৬ মাসের Bank Statement
সালারি পাওয়ার রশিদ ব্যবসার প্রমান
১৬ নং Form বিগত তিন সালের ইনকাম ট্যাক্স রিটার্ন(self and business)বিগত তিন সালের Profit/Loss এবং Balance Sheet
চেক এর প্রসেসিং ফি চেক এর প্রসেসিং ফি

লোনের তিনটি প্রধান উপাদান-

লোনের তিন প্রকার এর components হয়-

  1. Principal বা যেটা আপনি ধার করছেন।
  2. Rate of interest বা সুদের হার
  3. লোন এর duration বা কখন লোন নেওয়া হয়েছে

মূলধন

 আপনি কোন ব্যাংক বা financial institutions বা কোনো ব্যক্তির কাছ থেকে যখন লোন নেন তখন যে পরিমাণ টাকা আপনি নিচ্ছেন সেটাই হলো principal amount। অর্থাৎ যে পরিমাণ টাকা আপনি ধার নিয়েছেন।

সুদের হার

এটা এমন একটা amount যেটা সময়ের সাথে সাথে মূলধনের এর সঙ্গে সংযুক্ত হতে থাকে। আবার এটাও বলা যায় যে আপনাকে কেউ তো বিনা interest এ লোন ফেরত দেবে না তাই যে amount টা principal amount t এর সাথে ফেরত দেওয়া হয় তাকে rate of interest বলে। 

লোনের সময়কাল

আপনি যখন কাউকে লোন দিচ্ছেন সেই টাকা তাকে ফেরত দিতে হবে কিন্তু সে আপনাকে কোনো fixed date বলে দেয়না না যে সেই date টাকা ফেরত দেবে। কিন্তু সে আপনাকে একটা date অবশ্যই দিয়ে থাকে যার মধ্যে তাকে আপনার টাকা ফেরত দিতে হবে। সেই date টিকে বলে লোনের duration। 

লোন এর বিভাগ :-  

লোন কে সাধারণত দুই ভাগে ভাগ করা যায়,

  1. Secured
  2. Unsecured 

 তাহলে এবার জানা যাক Secured এবং Usecured লোন এর সমন্ধে- 

Secured –

 এটা হলো এমন একটা লোন যেখানে secure, নিশ্চিত ভাবে লোন দেওয়া হয় assets এর রূপে। যেমন ধরুন- gold, property, fixed deposit আর PF বা provident fund এর মাধ্যমে। 

Unsecured – 

এটা এমন একটা লোন যা শুধু আপনি নিজের প্রয়োজন মেটাতে ব্যবহার করতে পারেন। এখানে কোন প্রকারের security, collateral এর দরকার পড়ে না। এটা এক ধরনের personal লোন। ব্যাংক ও NBFC এই লোন আপনাকে কোনপ্রকার এর security ছাড়াই দিয়ে থাকে। এবং এর সাথে তারা আপনার CIBIL Score ও personal track record গুলো দেখে থাকে। 

লোন এর মূল কয়েকটি ভাগ – 

লোন সাধারণ ভাবে 6 প্রকারের হয়ে থাকে। যেমন – 

  1. Home লোন
  2. Education লোন
  3. Car লোন 
  4. Personal লোন
  5. Business লোন
  6. Gold লোন

Home লোন 

যখন কোনো ব্যক্তি নিজের বাড়ি বানাবার জন্য বা কেনার জন্য যেকোনো financial institutions থেকে একটা নির্দিষ্ট সময়ের জন্য টাকা ধার নেয় এবং তা আবার সময় এর মধ্যে সুদ সমেদ ব্যাংকে ফেরত দেয় দেয় তাকে home লোন বলে। 

Education লোন

ধরুন আপনি একজন student এবার আপনি আপনার education এর খরচ নিজে চালাতে চান বা others কোনো problem এর জন্য আপনাকে আপনার education এর খরচ নিজেকেই দিতে হয় সেক্ষেত্রে এই লোন আপনাকে সাহায্য করতে পারে। 

প্রথমে আপনি আপনার education এর জন্যে ব্যাংক থেকে লোন নিলেন তারপর নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তা সুদ সমেত ফেরত দিয়ে দিলেন একেই education লোন বলে। 

Car লোন 

আপনি ধরুন একটা নতুন বা second hand car কিনতে চান। কিন্তু তখন যদি আপনার কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণ টাকা না থাকে তখন আপনি সেই ক্ষেত্র car লোন use করতে পারেন। 

Personal লোন 

personal লোন এর কোনো security থাকে না। এটা একটা Unsecured লোন। এখানে interest এর মান অনেক বেশি থাকে। 

Business লোন

আপনি যদি এখন Business করছেন বা business শুরু করতে চাইছেন এবং এর জন্য আপনার যদি টাকা লাগে তাহলে আপনি Business লোন নিতে পারেন। 

Gold লোন

আপনি যদি short term এর জন্য লোন নিতে চান যেমন 1 বছর বা 2 বছর এর জন্য বা ধরুন আপনি বাড়ি কেনার জন্য বা business এ urgent কোনো টাকা লাগলে, তখন আপনি গোল্ড লোন নিতে পারেন। এখানে 3 থেকে 4 বছর এর জন্য লোন দেওয়া হয়। আর এখানে অনেক বেশি amount এর টাকা দেওয়া হয় না।

কেন আপনি সমিতি ম্যানেজার সফটওয়্যারটি ব্যবহার করবেন? Thursday, 27th July, 2023

কোন ব্যবসা সুন্দর ভাবে পরিচালনা করতে হলে তার ম্যানেজমেন্ট সুন্দর হওয়া খুবই গরুত্বপূর্ণ। আর সেই ব্যবসা যদি হয় অর্থনৈতিক, তবে তার হিসাব নিকাশ সুক্ষ্ম ও নির্ভুল হওয়া একান্ত জরুরী। আমরা বিশ্বাস করি আপনার সুন্দর ব্যবসার নির্ভুল হিসাব ও সুক্ষ্ম সংরক্ষন আপনার ব্যবসাকে আরো গতিশীল করবে। সেক্ষেত্রে আপনাকে সহায়তা করবে আমাদের সমিতি ম্যানেজোর সফটওয়্যার। 

কেন আপনি সমিতি ম্যানেজার সফটওয়্যারটি ব্যবহার করবেন?
সমিতি ম্যানেজার হলো একটি সচ্ছ, সুন্দর ও নির্ভুল হিসাবধারী সফটওয়্যার। এর মাধ্যমে আপনি আপনার ব্যবসায়ী সমতির হিসাব নিকাশ সংরক্ষন করতে পারবেন অতি সহজে ও নির্ভুল ভাবে। যা আনপার ব্যবসাকে করবে সহজ ও আরো গতিশীল।

সমিতি ম্যানেজার যেভাবে কাজকরে-
১. গ্রাহকের প্রোফাইলে যাবতীয় তথ্যাদী সংরক্ষন করা।
২. সাধারণ ডিপোজিট, ফিক্সড ডিপোজিট, ডিপিএস ও ইনসুরেন্স গ্রহনের সুবিধা।
৩. লোন প্রদান ও আদায়ের সাথে মেনুয়ালী ইন্টারেস্ট বসানোর সুবিধা, যা মূল লোনের সাথে অটো ক্যালকুলেশন হবে।
৪. লোন রিনুয়াল সুবিধা। ৫. তারিখ অনুযায়ী গ্রাহকের লেনদেন স্ট্রেটমেন্ট দেখা।
৬. সকল কালেকশনের সামরি দেখা ও প্রিন্ট করা।
৭. কাস্টমারের আদায় সীট ও লেজার প্রিন্ট।
৮. কাস্টমারকে লেনদেনের নিশ্চিতকরন এস.এম.এস দেয়া।
৯. ব্যাংক ডিপোজিট।
১০. ওয়েলফেয়ার।
১১. সেটেলমেন্ট এ্যাডজাস্টমেন্ট।
১২. কর্মচারীদের বেতন ভাতা প্রদানের সুবিধা।
১৩. ভূল লেনদেন সংশোধনের সুবিধাতো থাকছেই সাথে থাকছে আনলিমিটেড ইউজার দেয়ার সুবিধা।
তাই কাল বিলম্ব না করে এখনি ডাউনলোড করুন সমিতি ম্যানেজার সফটওয়্যার।